মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ইতিহাস

নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর, ঢাকা।

ইতিহাসঃ বিশ্ব ব্যাপী নার্সিং ও মিডওয়াইফারি একটি সমাদৃত এবং মহান পেশা হিসেবে স্বীকৃত যা স্বাস্থ্যসেবার একটি  অপরিহার্য্য অংশ। বাংলাদেশে নার্সিং পেশার যাত্রা ব্রিটিশ- ইন্ডিয়া হতে শুরু হলেও ইহার প্রাতিষ্ঠানিক রুপ পায় ১৯৮৭ সালে। বাংলাদেশের নার্সিং ব্যবস্থাপনা ও সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার  কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রনাধীন একটি সংযুক্ত দপ্তর হিসেবে ১৯৭৭ সালে "সেবা পরিদপ্তর" গঠিত হয়েছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী ও মানবতার জননী শেখ হাসিনার আন্তরিক সহযোগিতায় এবং মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ নাসিম, এম,পি,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় মহোদয়ের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় ১৬ নভেম্বর, ২০১৬ তৎকালীন সেবা পরিদপ্তরকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একটি সংযুক্ত দপ্তর হিসেবে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরে উন্নীত করা হয়েছে। সেবা পরিদপ্তর (কর্মচারী) নিয়োগ বিধিমালা, ২০১৬ বাংলাদেশ গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল কে বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিলে উন্নীত করা হয়েছে এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল এ্যাক্ট, ২০১৬ জাতীয় সংসদ কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে।

নার্সিং শিক্ষা ও সার্ভিস কার্যক্রমকে অধিকতর শক্তিশালী ও গতিশীল করার লক্ষ্যে অত্র দপ্তরটিকে অধিদপ্তরে উন্নীত করার পাশাপাশি পদসৃজনের মাধ্যমে  নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের জন্য মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত মহাপরিচালকসহ ১৬ (ষোল) ক্যাটাগরির মোট ৭৭ (সাতাত্তর) টি নতুন পদ সৃজনকরা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর প্রতিশ্রুতি মোতাবেক ৩০০০ (তিন হাজার) মিডওয়াইফ পদ সৃজন করা হয়েছে। বর্তমানে দেশের সকল স্বাস্থ্যসেবা ও নার্সিং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৩২,৫৪৭+ (বত্রিশ হাজার পাচ শত সাতচল্লিশ জন) নার্স,  ১১৪৯ জন মিডওয়াইফ  ও ৮৭৬ জন নন-নার্সিং কর্মকর্তা ও কর্মাচারি সরকারি চাকুরিতে নিয়োজিত  আছেন। দেশের ৩৮টি সরকারি নার্সিং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৯৭৫ (নয়শত পঁচাত্তরটি আসনে ৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্স চালু করা হয়েছে। ইউএনএফপিএ কর্তৃক ৩১ (একত্রিশ) জন শিক্ষার্থী নিয়ে ডালারনা ইউনিভার্সিটি, সুইডেন ভিত্তিক Sexual and Reproductive Health & Rights (SRHR) বিষয়ে ওয়েব বেজড মাস্টার্স অন মিডওয়াইফারি কোর্স চালু করা হয়েছে।  এযাবৎ মোট ৬০ (ষাট)জন  মাস্টার্স কোর্স সম্পন্ন করেছে এবং ৬০ (ষাট) জন চলমান আছে। ২০১৭-১৮ ও ২০১৮-১৯  শিক্ষা বর্ষে দুই জন করে মোট চার জন মিডওয়াইফস ফ্যাকাল্টিকে ওয়েব-বেজড পিএইচডি কোর্সে  অধ্যয়ন  করছেন। নার্সিং ও মিডওয়াইফারি এডুকেশন এ্যান্ড সার্ভিসেস (নেমস) অপারেশনাল প্লানের আওতায় ১৬ জন নার্স থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া থেকে বিভিন্ন বিষয়ে পিএইচডি সম্পন্ন করে নিয়ানার (জাতীয় নার্সং উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান ) ও দেশের বিভিন্ন নার্সিং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন। এ ছাড়াও, ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে ১৪০ জন সিনিয়র স্টাফ নার্সকে ৬টি বিশেষ বিষয়ের  উপর (ICU/CCU, Respiratory Nursing, Pediatric Nursing, Geriatric Nursing, Oncology থাইল্যান্ড ও ইন্দোনেশিয়া থেকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 


Share with :

Facebook Facebook